এসএসসি বোর্ড চ্যালেঞ্জ করার নিয়ম ২০২৩ (সকল তথ্য) | SSC Board Challenge Korar Niyom 2023

এসএসসি বোর্ড চ্যালেঞ্জ করার নিয়ম ২০২৩
এসএসসি বোর্ড চ্যালেঞ্জ করার নিয়ম ২০২৩

এসএসসি বোর্ড চ্যালেঞ্জ করার নিয়ম ২০২৩ - সূচনা 

আসসালামু আলাইকুম, প্রিয় পাঠক আপনি কি এসএসসি ২০২৩ এর পরীক্ষার্থী? আপনার কি আশানুরূপ ফলাফল আসে নি? আপনি কি আপনার খাতা চ্যালেঞ্জ করতে চাচ্ছেন? 

কিন্তু জানেন না কিভাবে বোর্ড চ্যালেঞ্জ করতে হয়? তাহলে এই গুরুত্বপূর্ণ পোস্ট টি আপনার জন্যই। চলুন আজকে জেনে নেওয়া যাক এসএসসি বোর্ড চ্যালেঞ্জ করার নিয়ম ২০২৩। 

বোর্ড চ্যালেঞ্জ সম্পর্কে সকল প্রশ্নোত্তর আলোচনা করে পোস্টটি বড় হয়ে গেছে তবুও অনেক কিছু জানতে পারবেন। তাই সম্পুর্ণ পোস্ট টি পড়ুন।

এসএসসি বোর্ড চ্যালেঞ্জ ২০২৩ কারা করতে পারবে

যারা এসএসসি ২০২৩ এর পরীক্ষার্থী তারা সকলেই বোর্ড চ্যালেঞ্জ করতে পারবেন। বোর্ড চ্যালেঞ্জ বা খাতা চ্যালেঞ্জ মানে হল আপনার খাতা টি আবার দেখা হবে যে, মার্ক গননায় কোন ভুল আছে কিনা। 

এর জন্য আপনাকে বোর্ড চ্যালেঞ্জ এর জন্য আবেদন করতে হবে। আর তার জন্যই আপনাকে জানতে হবে এসএসসি বোর্ড চ্যালেঞ্জ করার নিয়ম। 

এসএসসি বোর্ড চ্যালেঞ্জ কোন বিষয় গুলো তে করা যাবে

যারা এবার পরীক্ষার ফলাফল হাতে পেয়েছেন কিন্তু পরীক্ষা দিয়ে যে ফলাফল আশা করেছিলেন তার থেকে খারাপ রেজাল্ট এসেছে সেই সকল বিষয়ে আপনারা চ্যালেঞ্জ করতে পারবেন। 

আপনি চাইলে একটি বিষয়ের উপর বোর্ড চ্যালেঞ্জ করতে পারবেন আবার সকল বিষয়েও করতে পারবেন। অর্থাৎ যেসকল বিষয়ে আপনার মনে হয় যে যেটা আশা করেছিলাম সেটা পাইনি সে সকল বিষয় গুলোতে চ্যালেঞ্জ এর জন্য আবেদন করতে পারেন। 

এসএসসি বোর্ড চ্যালেঞ্জ এর আবেদনের তারিখ কবে থেকে শুরু এবং কবে শেষ

আজ ২৮ জুলাই ২০২৩ সকাল ১০ ঘটিকায় এসএসসি ২০২৩ পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশিত হয়েছে। আশা করা যায় আগামিকাল মানে ২৯ জুলাই ২০২৩ তারিখে বোর্ড থেকে নোটিশ প্রকাশ করবে বোর্ড চ্যালেঞ্জ এর তারিখ জানিয়ে দিবে। আর নোটিশ দিলে আমাদের ফেইসবুক পেইজে এবং এই পোস্টে সংযুক্ত করে দেওয়া হবে। 

তবে আশা করা যায়, আগস্ট মাসের প্রথম সপ্তাহ জুরে বোর্ড চ্যালেঞ্জ করার সুযোগ থাকবে। বোর্ড চ্যালেঞ্জ এর নোটিশ পেতে এই ওয়েবসাইটের লিঙ্কটি নোট করে রাখুন নোটিশ ছারলে এখানে দিয়ে দিব। 


যারা কোন বিষয়ে ৬৯ বা ৭৯ এরকম নাম্বার পেয়েছ তাদের কি বোর্ড চ্যালেঞ্জ করা উচিত!

একটা বিষয় খেয়াল করেন যে শিক্ষক আপনার খাতা দেখেছেন সে কি আপনাকে ১ মার্কের জন্য প্লাস মার্ক পাওয়া থেক বঞ্চিত করবেন? না, করবেন না। বরং তোমার প্লাস মার্ক পেতে যদি ২ বা ৩ মার্কেরও প্রয়োজন হয় তাহলে সে দিয়ে দিবে। 

এমনকি সে তোমার খাতায় নিজে লিখে মার্ক দিবে যেটা আমরা সচারচার জানি। কিন্তু তবুও ৫৯,৬৯,৭৯ এরকম মার্ক কেন আসে? কারন পরীক্ষা হয় দুইটি ভাগে MCQ এবং CQ পদ্ধতিতে। 

তো ফলাফল হয় এই দুইটার মার্ক যোগ করে একসাথে। তাই দেখা যায় ৭৯ পেয়েও প্লাস মার্ক আসে না। এখানে তো স্যারদের কোন হাত থাকে না। কারন MCQ এবং CQ এর খাতা আলাদা আলাদা ভাবে দেখা হয় এরপর একসাথে যোগ করা হয়। 

তো আপনি যদি চ্যালেঞ্জ করেন আপনার খাতার মার্ক গুনে দেখবে এবং শেষমেশ সেই ৬৯ বা ৭৯ মার্ক ই আসবে। তাই ১২৫ টাকা দিয়ে চ্যালেঞ্জ করে টাকা টাই অপচয়। তবে আপনার যদি সামর্থ্য থাকে আপনি করতে পারেন আপনার নিতান্তই ব্যাক্তিগত ইচ্ছা। 

আমি শুধু আপনাকে বুঝালাম কেন ৬৯ বা ৭৯ এরকম মার্ক আসে। যদি আপনার খাতার মার্ক গননায় ভুল থাকে সেক্ষেত্রে বাড়তেও পারে। 

এসএসসি বোর্ড চ্যালেঞ্জ করতে কত টাকা লাগে?

প্রতিবছর বোর্ড থেকে একটা নোটিশ দেয় যেখানে বোর্ড চ্যালেঞ্জ করতে কত টাকা লাগে সেই সম্পর্কে বিস্তারিত জানানো হয়। তবে প্রতিবছরের ন্যায় বলা যেতে পারে বোর্ড চ্যালেঞ্জ করতে প্রত্যেক পত্রের জন্য ১২৫ টাকার মতো খরচ হয়। বেশি হলে প্রত্যেক পত্রের জন্য ২৫০ টাকা লাগতে পারে এর বেশি নিবে না বলে আশা করছি। 

বিঃ দ্রঃ এখানে প্রত্যেক পত্রের জন্য ১২৫ টাকা খরচ হয় বলা হয়েছে যা আপনারা অনেকেই বুঝেন না। ধরুন আপনার বাংলায় ফেইল আসছে বা আপনি বাংলা বিষয়ে বোর্ড চ্যালেঞ্জ করবেন, সেক্ষেত্রে আপনার ১২৫+১২৫=২৫০ টাকা প্রদান করতে হবে। কারন বাংলায় দুইটি পত্র মিলে ফলাফল তৈরি করা হয়। আপনি শুধু একটি পত্রের জন্য আবেদন করতে পারবেন না। আপনাকে বিষয়ের উপর আবেদন করতে হবে সেক্ষেত্রে ঐ বিষয়ে যদি দুই টি পত্র থাকে তাহলে ১২৫+১২৫=২৫০ টাকা দিতে হবে।

এসএসসি বোর্ড চ্যালেঞ্জ করার নিয়ম ২০২৩ | বোর্ড চ্যালেঞ্জ কিভাবে করবেন দেখে নিন

যারা বোর্ড চ্যালেঞ্জ করতে চান কিভাবে করতে হয় জানেন না তারা জেনে নিন। নিচে বোর্ড চ্যালেঞ্জ করার প্রক্রিয়া সম্পর্কে দেওয়া হলঃ

টেলিটক সিমঃ বোর্ড চ্যালেঞ্জ করতে হলে অবশ্যই টেলিটক সিম ব্যাবহার করে আবেদন করতে হবে। অন্য কোন অপারেটর হলে হবেনা। 

প্রথম ধাপঃ প্রথমে আপনার টেলিটক সিম থেকে মেসেজ বক্সে চলে যান। এবার সেখানে RSC<space>আপনার বোর্ডের প্রথম তিন অক্ষর বড় হাতের<space>বোর্ড রোল নম্বর<space>যে বিষয়ের জন্য চ্যালেঞ্জ করবেন সেই বিসয়ের বিষয় কোড

দ্বিতীয় ধাপঃ এবার এসএমএস টি পাঠিয়ে দিন 16222 এই নম্বরে। 

তৃতীয় ধাপঃ ফিরতি একটি এসএমএস আসবে আপনার নম্বরে যেখানে একটি পিন কোড দেওয়া থাকবে। এবার কোড টি কপি করে নিয়ে RSC<space>YES<space> এসএমএস এ পাওয়া কোড নম্বর<space>আপনার ফোন নম্বর

পঞ্চম ধাপঃ এবার এসএমএস টি পুনরায় 16222 এই নম্বরে পাঠিয়ে আপনার চ্যালেঞ্জ টি নিশ্চিত করুন। আপনার টেলিটক নম্বরে অবশ্যই ১২৫ বা চ্যালেঞ্জে যত টাকা খরচ হয় সেই পরিমানে টাকা থাকতে হবে যা বোর্ড থেকেই কেটে নেওয়া হবে। 

এভাবে আপনি ঘরে বসেই আপনার টেলিটক নাম্বার থেকে বোর্ড চ্যালেঞ্জ এর জন্য আবেদন করতে পারবেন। আপনার যদি টেলিটক নম্বর না থাকে তাহলে আপনি আপনার পরিচিত যেকোনো নাম্বার দিয়েই বোর্ড চ্যালেঞ্জের আবেদন করতে পারবেন।  

চ্যালেঞ্জ করার জন্য বিষয় কোড

চ্যালেঞ্জ করতে হলে আপনার যেই বিষয়ে চ্যালেঞ্জ করবেন সেই বিষয়ের বিষয় কোড জানতে হবে নতুবা চ্যালেঞ্জ করতে পারবেন না। নিচে এসএসসি বোর্ড চ্যালেঞ্জ করার নিয়ম ২০২৩ এর জন্য বিষয় কোডগুলো দেওয়া হলঃ

Subject Code Subject Name
101 BANGLA
107 ENGLISH
109 MATHEMATICS
150 BANGLADESH AND GLOBAL STUDIES
111 ISLAM AND MORAL EDUCATION
136 PHYSICS
137 CHEMISTRY
138 BIOLOGY
154 INFORMATION AND COMMUNICATION TECHNOLOGY
126 HIGHER MATHEMATICS
147 PHYSICAL EDUCATION, HEALTH AND SPORTS
156 CAREER EDUCATION

এসএসসি বোর্ড চ্যালেঞ্জ করার নিয়ম ২০২৩ - নমুনা

ধরুন, আপনি বাংলা বিষয়ে ফেইল করেছেন। তাহলে আপনাকে দেখতে হবে বাংলা বিষয়ে কয়টি পত্র? দুইটি পত্র তাইনা! তাহলে আপনাকে ১২৫+১২৫=২৫০ টাকা আপনার টেলিটক নম্বরে রিচার্জ করে রাখতে হবে। এবার আপনি যেই বিষয়ে চ্যালেঞ্জ করবেন সেই বিষয়ের সাবজেক্ট কোড টি নিবেন। 

যেমন আমরা ধরুন বাংলার জন্য নিলাম 101 এই কোডটি আপনি উপরের ছকে দেখতে পাবেন। এবার আমরা মেসেজ অপশনে গিয়ে নিচের মেসেজটি লিখে পাঠিয়ে দিবো 16222 এই নম্বরে।

মেসেজটি এরকম হবেঃ RSC DHA 11**26 101

এবার আমরা মেসেজটি পাঠিয়ে দিলাম। পাঠানোর কিছুক্ষনের মধ্যেই আরেকটি মেসেজ আসবে 16222 থেকে। সেখানে একটি পিন কোড দেওয়া থাকবে যার মানে আপনি চ্যালেঞ্জটি কনফার্ম করছেন। এবার সেই পিন কোড টি ধরুন 12*2*3 এটা। এবার আমরা আবার আরেকটি মেসেজ লিখবো।

মেসেজটি হলো এরকমঃ RSC YES 12*2*3 016*289*952

এবার এই মেসেজটি ও একই ভাবে 16222 নম্বরে পাঠিয়ে দিবো। আর এই মেসেজটি পাঠালেই আপনার বাংলা বা যেই বিষয়ের কোড দিবেন সেই বিষয়ের চ্যালেঞ্জের আবেদন তই চলমান হয়ে যাবে। 

শেষে যে নম্বরটি দিয়েছি ওটা হলো কন্টাক্ট নম্বর। বোর্ড চ্যালেঞ্জ এর রেজাল্ট এর মেসেজ ওই নম্বরে আসবে। তাই আপনারা আপনাদের চলমান একটি নম্বর দিবেন। 

এভাবে আমরা এসএসসি 2023 পরীক্ষার বোর্ড চ্যালেঞ্জ করতে পারবো। আশা করি বুঝতে পেরেছেন। 

কোন বিষয়ে ফেইল করলে কি বোর্ড চ্যালেঞ্জ করলে পাশ আসবে!

যদি আপনি কোন বিষয়ে ফেইল করে থাকেন তাহলে অবশ্যই বোর্ড চ্যালেঞ্জ করবেন। সুযোগ থাকতে মিস কেন করবেন। ফেইল আশার অনেক কারন থাকতে পারে হয়তো আপনি পরীক্ষা ভালো করে দেন নি তার জন্য ফেইল আসছে আবার এমন হতে পারে যে আপনার রোল নম্বর বা রেজিস্ট্রেশন নম্বর ভুল আছে যার কারনে মার্ক আসে নি ফেইল আসছে। 

অনেকে দেখা যায় একটা দুইটা বিষয়ে ফেইল করে তদের দেখা যায় বেশিরভাগই কোন না কোন ভুলের কারনে ফেইল আসছে। তাই আমি বলবো ফেইল করলেই সে যে কয় বিষয়েই করেন না কেন বোর্ড চ্যালেঞ্জ করে ফেলবেন। 

যদি ৫ বিষয়ে ফেইল করেন চ্যালেঞ্জ করে যদি ২ বিষয়ও কমে তাও ভালো পরের বছর আবার এক্সাম দিবেন। তাই বলা যায় না যে কি হবে চ্যালেঞ্জ করলে। 

সেট কোড, রোল নম্বর, রেজিস্ট্রেশন নম্বর ইত্যাদি ভুল করার কারনে অনেক সময় ফেইল  চলে আসে সেক্ষেত্রে চ্যালেঞ্জ করে দেখতে পারেন। সম্ভাবনা খুবি কম। 

বোর্ড চ্যালেঞ্জ এর রেজাল্ট কবে দিবে

বোর্ড চ্যালেঞ্জ এর রেজাল্ট সাধারণত বোর্ড চ্যালেঞ্জ এর আবেদন এর শেষ তারিখ হতে 20 থেকে 30 দিন কিছু কিছু সময় 40 দিন সময় লাগে। অর্থাৎ এই সময়ের মধ্যেই বোর্ড চ্যালেঞ্জ এর রেজাল্ট দিয়ে দেয়।

এসএসসি বোর্ড চ্যালেঞ্জ নোটিশ ২০২৩ 

এসএসসি বোর্ড চ্যালেঞ্জ করার নিয়ম ২০২৩ - SSC Board Challenge Korar Niyom 2023
SSC Board Challenge Korar Niyom 2023

বোর্ড চ্যালেঞ্জ এর জন্য কলেজে ভর্তি হতে সমস্যা হবে কিনা

না, বোর্ড চ্যালেঞ্জ এর জন্য জন্য আপনার কলেজে ভর্তিতে কোনো সমস্যা হবে না। যারা পাশ করেছেন তারা তো কলেজে ভর্তির জন্য আবেদন করতে পারবেন সমস্যা নেই। আর যারা ফেইল করেছেন তদেরকে সময় দেওয়া হবে। বোর্ড চ্যালেঞ্জ এর রেজাল্ট দেওয়ার পরে তারা সময় পাবে পছন্দের কলেজে ভর্তি হওয়ার। আশা করি বুঝতে পেরেছেন। 

বোর্ড চ্যালেঞ্জ এ খাতা কিভাবে দেখা হয়

অনেকে মনে করেন বোর্ড চ্যালেঞ্জ করলে মার্ক কমে যেতে পারে। আসলে কিন্তু বোর্ড চ্যালেঞ্জ করলে মার্ক কমে যায় না কখনো। বরং বোর্ড চ্যালেঞ্জ করলে মার্ক বাড়লে বাড়ানো হয় কিন্তু কমানো হয় না। আপনি যখন বোর্ড চ্যালেঞ্জ করবেন তখন আপনার খাতাটি একজন স্যারের কাছে পাঠানো হবে এবং সে শুধু মার্ক গুলো গননা করবেন এরপর সেই মার্ক অনলাইনে সাবমিট করে দিবেন এর বেশি কিছু হয় না বোর্ড চ্যালেঞ্জে। আপনার কোন প্রশ্নে মার্ক না দিলে বা মার্ক গুনতে ভুল করলে সেটি শুধু সংশোধন করে দেওয়া হয়। 

বোর্ড চ্যালেঞ্জ কিভাবে করে তার ভিডিও 

এসএসসি বোর্ড চ্যালেঞ্জ করার নিয়ম

আমাদের শেষ কথা

এসএসসি বোর্ড চ্যালেঞ্জ এর সম্পর্কে পরিপূর্ন একটি পোস্ট লেখার কারণে পোস্টটি অনেক বড় হয়ে গেছে তবে আপনারা আশা করি এসএসসি বোর্ড চ্যালেঞ্জ 2023 সম্পর্কে সকল ধারণাই পেয়েছেন। 

এরপরও যদি কোনো প্রশ্ন থেকে থাকে তাহলে আমাদের ফেইসবুক পেইজে মেসেজ করতে পারবেন। অথবা এই পোস্টের কমেন্টে বক্সে কমেন্ট করতে পারবেন। এবং কমেন্ট করার কয়েক ঘন্টা পর আপনি চেক করলেই উত্তর দেখতে পাবেন। 

আশা করি জানতে পেরেছেন এসএসসি বোর্ড চ্যালেঞ্জ 2023 কিভাবে করতে হয় সেই সম্পর্কে। আজ আর নয়। সকলের সুস্থতা কামনা করে বিদায় নিচ্ছি দেখা হবে নতুন কোনো পোষ্টে । আল্লাহ হাফেজ।
Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url
Facebook Page
telegram
প্রিমিয়াম সাজেশন গ্রুপ [9 to 12]

আপনি যদি নবম শ্রেণি থেকে দ্বাদশ শ্রেণির একজন শিক্ষার্থী হয়ে থাকেন তাহলে নিচের দেওয়া গ্রুপে জয়েন করুন। এই গ্রুপে সকল প্রিমিয়াম সাজেশন এবং নোট পেয়ে যাবেন। আশা করি আপনার পরীক্ষায় অনেক উপকার হবে।

গ্রুপ : এখানে ক্লিক করুন